রিয়েলমি ৩ প্রো স্মার্টফোন ২২ এপ্রিল লঞ্চ করা হবে
Share:

রিয়েলমি ৩ প্রো স্মার্টফোন ২২ এপ্রিল লঞ্চ করা হবে

রিয়েলমি ৩ প্রো

গত মাসে ভারতে লঞ্চ করা স্মার্টফোন রিয়েলমি ৩ যথেষ্ট সফলতা লাভ করেছে। ইন্ডিয়ান ইউজারদের মধ্যে ফোনটি এতটাই জনপ্রিয় হয়েউঠেছে যে মাত্র তিন সপ্তাহের মধ্যে রিয়েলমি ৩ এর ৫ লক্ষের‌ও বেশি ইউনিট বিক্রি হয়ে গিয়েছিল।

গতকাল কোম্পানির সিইও মাধব শেঠ তার অফিসিয়াল টুইটার হ‍্যান্ডেলের মাধ্যমে রিয়েলমি ৩ প্রোর রিয়েল ইমেজ শেয়ার করেন। আজ ফোনটির লঞ্চ ডেট ঘোষণা করা হয়েছে। কোম্পানি জানিয়ে দিয়েছে রিয়েলমি ৩ প্রো আগামী ২২ এপ্রিল ভারতের বাজারে লঞ্চ করা হবে।

প্রসঙ্গত গতকাল রিয়েলমি ইন্ডিয়ার সিইও মাধব শেঠ একটি টুইট করে রিয়েলমি ৩ প্রোর ফ্রন্ট প‍্যানেল দেখান। এই ফোনে ফোর্টনাইট গেম খেলতে খেলতে সিইও টুইট করেন রিয়েলমি ৩ প্রোর প্রসেসর অসাধারণ গেমিং সাপোর্ট করে এবং ইউজারদের দারুণ এক্সপেরিয়েন্স দেবে। এই টুইটে রিয়েলমি ৩ প্রো ফোনটিকে কয়েক দিন আগে ভারতে লঞ্চ করা কয়েকটি প্রো ফোনের প্রতিদ্বন্দ্বী বলা হয়েছে। এই টুইটে শাওমি রেডমি নোট ৭ প্রোকে টার্গেট করা হয়েছে এবং রিয়েলমি ৩ প্রোকে এই ফোনের থেকেও অ্যাডভান্স বলা হয়েছে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, রিয়েলমি ৩ প্রো ফোনটিতে কোয়াল্কম স্ন্যাপড্র্যাগন ৭১০ (SD 710) প্রসেসার থাকবে। রিয়েলমি ৩ প্রো ফোনটি রেডমি নোট ৭ ফোনের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় আসবে যা স্ন্যাপড্র্যাগন ৬৭৫ চিপসেট যুক্ত। 10nm নির্ভর 2.2GHz অক্টা কোর স্ন্যাপড্র্যাগন 710 SoC ফাস্ট আর স্ন্যাপড্র্যাগন 675 এর তুলনায় ভাল GPU অফার করে।

আর এও জানা গেছে যে এই স্মার্টফোনটি VOCC 3.0 তে আপগ্রেড করা যাবে। VOOC ডিভাইসে ৩০ মিনিটে ০-৭৫% পর্যন্ত চার্জ করতে পারে। এছাড়া রিপোর্টে এও বলা হয়েছে যে রিয়েলমি ৩ প্রো ফোনে Sony IMX519 ক্যামেরা সেন্সার যুক্ত হবে আর ডিভাইসের বিল্ড কোয়ালিটি রিয়েলমি ২ প্রো এর মতই হবে এবং ডিভাইসের ব্যাক প্লাস্টিকের হবে।

রিয়েলমি ৩ প্রো ফোনটি তিনটি ভেরিয়েন্টে আনা হতে পারে। ডিভাইসের একটি ভেরিয়েন্ট ৪ জিবি র‍্যাম আর ৩২ জিবি স্টোরেজ যুক্ত হবে আর এর দ্বিতীয় ভেরিয়েন্টটি হয়ত ৪ জিবি র‍্যাম আর ৬৪ জিবি ভেরিয়েন্টের হবে। আর এর তৃতীয় ভেরিয়েন্টটি ৬ জিবি র‍্যামের সঙ্গে ৬৪ জিবিভেরিয়েন্টের হবে।

Share:
লিখেছেন
শামীম রেজা
Join the discussion

শামীম রেজা

কীবোর্ডের "কী" থেকে শুরু করে মোবাইলের "হ‍্যালো" পর্যন্ত সবকিছুর মধ্যেই টেকনোলজি আছে। এই টেকনোলজির প্রতি ভালোবাসা থেকেই টেকনোলজি বুঝে সেটা নিয়ে লেখা শুরু।

Advertisement