রিভিউ

বাজার মাতাবে এবার সনি এক্সপেরিয়া জেড ওয়ান কমপ্যাক্ট

বছরের শুরুতেই গ্রাহকদের জন্য সনি নিয়ে এলো এক আকর্ষণীয় ডিভাইস। প্রতি বছরের মতো এবারো যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসে অনুষ্ঠিত CES Fair এ প্রথম দিনেই সনি মাতিয়ে দিলো তাদের নতুন ডিভাইস Xxperia Z1 Compact দিয়ে। এটি হচ্ছে ২০১২ এর Xperia Z এবং ২০১৩ এর Xperia Z1 এর আরো উন্নত সংস্করণ।

গত কয়েক বছর স্যামসাং যেমন বিভিন্ন ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইস দিয়ে বাজার মাত করছে যেমন S3, S4, Galaxy Note ইত্যাদি; সেই সাথে প্রতিযোগী হিসেবে আরো আছে Apple এবং HTC , সেখানে সনি তাদের Xperia, আরো বিশেষ করে বলতে গেলে জেড এবং জেড ওয়ান দিয়ে তাদের মুখোমুখি হয়ে আছে। আর এবার নিয়ে আসলো জেড ওয়ান কমপ্যাক্ট। খোদ সনি নিজেই বলছে, এযাবৎ কালে বের হওয়া সনির সকল মোবাইল ডিভাইসের মধ্যে এটা সবার সেরা। তারা তাদের ট্যাগলাইনেই বলেছে, The best of Sony in a compact waterproof smartphone.

Galaxy S4, HTC One কিংবা Apple 5S যাই বলেন না কেন, সবগুলা ডিভাইসই তাদের নামের রাজকীয়তা বজায় রেখেছে। কিন্ত পানি-নিরোধী এর দিক দিয়ে সবাইকে হারিয়ে দিয়েছে Z1 Compact. জেড ওয়ানেই সনি পানি-নিরোধী বৈশিষ্ট্য যোগ করেছিল, এটায় হচ্ছে সেটারও আপগ্রেড।  আর Nokia Lumia সিরিজ এবং iPhone 5C এর সাথে পাল্লা দিয়ে Sony Xperia Z1 Compact আনলো ৫টি রঙ এর সিরিজ। ফলে এখন আপনি নিজের বা প্রিয় জনকে দিতে পারেন মনের মতো রংয়ের ছোঁয়া।

আসুন জেনে নেই এটার কিছু ফিচার।

ক্যামেরাঃ প্রথমেই আসি ক্যামেরা নিয়ে। সনি এক্সপেরিয়া জেড ওয়ান কমপ্যাক্ট এ রয়েছে সনির পুরস্কার বিজয়ী G লেন্সের সাথে ২০.৭ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। এই ১/২.৩” সেন্সরের ২০.৭ মেগা পিক্সেলের HD ক্যামেরায় আপনি পাবেন আরো বড় ছবি। সাথে ২৭মিমি প্রশস্ত G লেন্সের মাধ্যমে পারবেন অন্ধকারে আরো ভালো ছবি তুলতে। আর BIONZ ইঞ্জিনের মাধ্যমে আপনার ছবি হয়ে ওঠবে আরো জীবন্ত। এর ৩ গুন ক্লিয়ার জুমের মাধ্যমে আপনি পাবেন ৮১ মিমি অপটিক্যাল জুমের সুবিধা। সাথে আছে ২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা। আর ৩০FPS এর মাধ্যমে আপনি করতে পারবেন ১৯২০X১০৮০ রেজ্যুলেশনের HD ভিডিও।

আর সাথে রয়েছে এডিটিং ও পাবলিশিং এর জন্য সনির নিজস্ব কিছু অসাধারণ এপস যার মাধ্যমে বন্ধুদের মধ্যে আপনার ছবি হয়ে ওঠবে সম্পূর্ণ আলাদা।

ডিসপ্লেঃ সনি এক্সপেরিয়া জেড ১ কমপ্যাক্ট এ রয়েছে ৪.৩ ইঞ্চির পর্দা। ৪.৩ ইঞ্চির পর্দায় পাবেন আপনি পাবেন ৭২০x১২৮০ পিক্সেলের HD ডিসপ্লে। আর তা আরো আকর্ষনীয় করার জন্য প্রতি ইঞ্চিতে রয়েছে ৩৪২ পিক্সেল যা আপনাকে দিবে আরো ক্লিয়ার ও শার্পার ইমেজ। ১৬৭৭২১৬ কালারের ডিসপ্লেতে পাবেন জীবন্ত ছবির অনুভূতি।

ডিজাইনঃ আগেই বলেছি এর ওয়াটারপ্রুফের কথা যা আপনাকে দেড় মিটার পানির নিচে ৩০ মিনিট নিশ্চিন্তে রাখবে। ফলে পানির নিচের অবাক সৌন্দর্য আপনি ক্যাপচার করতে পারবেন নিশ্চিন্তেই। ১২৭X৬৪.৯X৯.৫ মিলিমিটারের ফোনটির ওজন ১৩৭ গ্রাম।

হার্ডওয়্যারঃ সনি এক্সপেরিয়া জেড ওয়ান কমপ্যাক্ট এ রয়েছে লেটেস্ট ২২০০ মেগাহার্টজ এর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮০০ কোয়াডকোর প্রসেসর। গ্রাফিক্সের জন্য আছে Adreno 330 প্রসেসর। ২ জিবি র‍্যামের ফোনটিতে রয়েছে ফার্মওয়ারের জন্য নির্দিষ্ট ৪ জিবি সহ ১৬ জিবি বিল্ট-ইন মেমরী যা আপনি আলাদা কার্ডের মাধ্যমে  ৬৪ জিবি পর্যন্ত বাড়াতে পারবেন।

ব্যাটারীঃ জেড ওয়ান কমপ্যাক্ট ফোনে রয়েছে ২৩০০mAh এর শক্তিশালী ব্যাটারী যা আপনাকে গড়ে ১৩ ঘন্টা কথা বলতে দিতে সক্ষম। এছাড়াও থ্রীজি নেটওয়ার্কে আপনি প্রায় ১২ ঘন্টা কথা বলতে পারবেন। এর স্ট্যান্ড বাই টাইম টু জি’তে ৬৭০ ঘন্টা, থ্রী জি’তে ৬০০ ঘন্টা এবং ৪জি তে ৫৫০ ঘন্টা।

সফটওয়্যারঃ যদিও এ যাবতকালে সনির কোন ডিভাইসেই এন্ড্রয়েড 4.4 কিটক্যাট সাপোর্ট করে নি তবে শোনা যাচ্ছে এ ফোনে তা যাবে। তবে বিল্ট ইন আছে Android 4.3 ভার্সন।

নেটওয়ার্কঃ প্রচলিত মোবাইল নেটওয়ার্কের প্রায় সকল ভার্সন সাপোর্ট করবে ফোনটিতে। যেমনঃ
২জিঃ ৮৫, ৯০০০, ১৮০০, ১৯০০
থ্রীজিঃ ৮৫০, ৯০০, ১৭০০, ১৯০০, ২১০০
৪জি(LTE): ব্যান্ড ১,২,৩,৪,৫,৭,৮,২০

পরিশেষে বলতে পারি বাজারে Apple, HTC ছাড়াও স্যামসাং এর একের পর এক ডিভাইসের সাথে পাল্লা দিতে সনি সঠিক ডিভাইসটিই বাজারে এনেছে। আজ মেলার দ্বিতীয় দিন। দেখা যাক আজ স্যামসাং তাদের গ্যালাক্সি নোট প্রো এর মাধ্যমে কি দেখায়।

About the author

শামীম রেজা

বপ্ন দেখতে ভালো লাগে, ভালো লাগে জানতে। জানানোর মধ্যেও আনন্দ পাই। পাগলের মত সারাক্ষণ প্রোগ্রামিং করতে যেমন পছন্দ করি, তেমনি পছন্দ করি লিখতে, জীবন নিয়ে ভাবতে। অফিস, প্রোগ্রামিং আর আমার ছেলে, এই নিয়েই আমার দুনিয়া।

1 Comment

Leave a Comment